অনাগত কালেও পদ্মা সেতু হবে জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ গৌরব আর সে গৌরবের মধ্যমণি হয়ে থাকবেন দেশরত্ন শেখ হাসিনা - রবি উপাচার্য শাহ্ আজম

  • 25 June
  • 07:49 PM

মোঃ হাবিবুর রহমান, রবিবা প্রতিনিধি 25 June, 22

বীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে গৌরবের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহ্ আজম। আজ শনিবার (২৫ জুন) বিকাল ৫ টায় রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ভবন-২ বৃক্ষরোপণের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানের শুভসূচনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহ্ আজম।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ভবন-২ থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ভবন-১-এ শেষ হয়। পরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ভবন-১-এর লেকচার থিয়েটারে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

আলোচনা সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহ্ আজম। তিনি বলেন, স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ উদ্বোধন করলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি আরো বলেন, পদ্মা সেতু শুধু একটি সেতু নয় এটি বাঙালির অহংকার, বাঙালি জাতি তার পিতার কাছে থেকে নেওয়া শিক্ষা "বাঙালি জাতি কখনো মাথা নোয়াবার জাতি নয়" সকল ষড়যন্ত্রের বেড়াজাল ছিন্ন করে, সকল বাধাবিপত্তিকে অতিক্রম করে সেটি আবারও প্রমাণ করলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের মানুষ আজ মাথা উঁচু করে বলতে পারে বাংলাদেশ কারো কাছে মাথা নত করতে শেখে নাই, বাংলাদেশের পথ চলা বীরের মত, সুতরাং পদ্মা সেতু আমাদের অহংকার বলে রবি ভিসি উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, শুধুমাত্র অর্থনৈতিক উন্নয়নই নয়, দুই পারের মানুষের বিচ্ছিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক মেলবন্ধন হয়েছে পদ্মা সেতুর মাধ্যমে।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার জনাব মোঃ সোহরাব আলী, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. ফরুল ইসলামসহ বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।