সিনিয়রকে 'তুমি' বলে সম্বোধন করায় কুবিতে ২ ব্যাচের সংঘর্ষ

  • 16 Oct
  • 12:37 AM

মাহমুদুল হাসান নয়ন,কুবি প্রতিনিধি 16 Oct, 21

সিনিয়র ব্যাচের শিক্ষার্থীকে 'তুমি' বলে সম্বোধন করায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ১২ তম এবং ১৩ তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে এবং এ ঘটনায় ৫ জনের বেশি শিক্ষার্থী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) রাত ১১ টার দিকে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ১৩ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী রিয়াজুল ইসলাম বাধন ১২ তম ব্যাচের আরেক শিক্ষার্থীকে 'তুমি' বলে সম্বোধন করে। যার ফলে ১২ তম ব্যাচের কয়েকজন শিক্ষার্থী বাধনকে তাদের রুমে গিয়ে শাসায়।

পরবর্তীতে এ ঘটনার জের ধরে বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে বাধনের বেশ কয়েকজন বন্ধু মিলে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ১২ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী শাফীকে মারধর করতে থাকে। শাফীকে মারধরের খবর পেয়ে তার বন্ধুরা রুমের দরজা ভেঙে শাফীকে ১৩ তম ব্যাচের হাত থেকে উদ্ধার করে।

এই ঘটনায় দুই ব্যাচ মারমুখী হয়ে উঠলে দত্ত হলের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এসে সংঘর্ষে লিপ্ত দুই ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদের কক্ষে নিয়ে গিয়ে মীমাংসা করেন।

এ বিষয়ে হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাফিউল আলম দীপ্ত বলেন, আমি জেনেছি কথা-কাটাকাটি'র জেরে দুই ব্যাচের মাঝে উচ্চ বাক্য বিনিময় হয়। পরবর্তীতে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে সাংগঠনিকভাবে তাদেরকে মিটমাট করে দিয়েছি।

দুই ব্যাচের শিক্ষার্থীদের মধ্যে মারামারির এমন ঘটনাকে অপ্রত্যাশিত উল্লেখ করে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: রেজাউল ইসলাম মাজেদ বলেন, এ ঘটনাটি ঘটেছে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ম্যাচিউরিটির অভাবে। ১৩ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ১২ তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের সাথে বেয়াদবি করবে সেটা অপ্রত্যাশিত।

এ বিষয়ে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের প্রভোস্ট ড. মোহাম্মদ জুলহাস মিয়া বলেন, "বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত নই। যদি হলে আসলে এমন কোন ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে তদন্ত কমিটি গঠন করে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।"