টুঙ্গিপাড়ার ৫নং ডুমুরিয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়া

  • 11 Dec
  • 07:40 AM

নিজস্ব প্রতিবেদক 11 Dec, 21

চতুর্থ ধাপে সারাদেশের ন্যায় আগামী ২৬ ডিসেম্বর (রোববার) গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নে ৫নং ডুমরিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন-২০২১, ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওই ইউপি নির্বাচনে আবারও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন সাবেক ৫নং ডুমুরিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়া।

সাবেক আওয়ামী লীগের নেতা হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়া ১৯৯৮ সালে ৫নং ডুমুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিপুল সংখ্যক ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এবং ১৯৯৮ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ ৫ বছর সততা ও দক্ষতার সাথে ইউনিয়নবাসীর সেবা করেন। পরবর্তীতে ২০১১ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে ৫নং ডুমুরিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেও নৌকা প্রতীকের সমর্থনে তিনি মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেন। ঠিক একইভাবে ২০১৬ সালেও বঙ্গবন্ধুর নৌকা প্রতীককে সমর্থন করে নির্বাচন থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন।

এরপর চলতি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন-২০২১ এ নৌকা প্রতীক পেতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর সমীপে বড়ো বড়ো আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ আবেদন করেন। কিন্তু সাদামাটা সহজ সরল জীবনযাপনে অভ্যস্ত হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়া নৌকার মাঝি হতে চাইলেও সিনিয়র ও বড়ো বড়ো নেতার দৌড়ঝাঁপে নৌকার প্রার্থী হিসাবে আবেদন করেননি। কিন্তু জনসেবার অদম্য স্পৃহা এবং জনসাধারণের সমর্থনে আবারও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে চেয়ারম্যান নির্বাচন করবেন তিনি। এবারের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়ার প্রতীক আনারস।

এবিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়া বলেন, "আমি খুবই সাধারণ পরিবারের ছেলে। সাদামাটা জীবনযাপনই আমার পছন্দ।মানুষের সেবা ও মানুষের প্রয়োজনে পাশে থাকার প্রবল ইচ্ছে শক্তি এবং ইউনিয়নবাসীর ভালাবাসার জন্য আমি চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছি। তারা বিগত সময়ে সুখে দুঃখে আমার পাশে ছায়ার মত ছিলেন। আমার বিশ্বাস এবারের নির্বাচনেও ইউনিয়নবাসী সকলে আমার পাশে আছেন এবং থাকবেন। আমার কোনো চাহিদা নেই। ইউনিয়নবাসীই আমার শক্তি, আমার ভালবাসা। ইউনিয়নবাসীকে পাশে পেলে আমি অবশ্যই একটি সমৃদ্ধ ও শেখ হাসিনার ডিজিটাল ডুমরিয়া তাদের উপহার দিব।

তিনি আরও জানান, ৫নং ডুমুরিয়া ইউনিয়নবাসী সকলে হাতে হাত রেখে, কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে অতীতের সব ভেদাভেদ, ক্রোধ, হিংসা ভুলে পাড়া, মহল্লা, গ্রাম তথা ইউনিয়নের উন্নয়নে যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করি। সকলে ধৈর্যধারণ করে ঝগড়া-বিবাদহীন সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণ সুন্দর মডেল ইউনিয়ন গড়ে তুলি। সমগ্র বাংলাদেশে মধ্যে টুঙ্গিপাড়ার ৫নং ডুমুরিয়া ইউনিয়নবাসী গর্বের সাথে মাথা উচু করে দাঁড়াক এটা আমার প্রত্যাশা।

উল্লেখ্য, টুঙ্গিপাড়ার ৫নং ডুমুরিয়া ইউনিয়নের বাঁশবাড়িয়া গ্রামের মৃত জিন্নাত আলী শেখের ১ম সন্তান হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়া। তার বড় ছেলে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করেন এবং ছোট ছেলে ৩৪তম বিসিএস কৃষি ক্যাডারে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়ে প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা হিসাবে দেশের সেবায় নিয়োজিত রয়েছেন। বড় মেয়ে সাংসারিক জীবনে গৃহিণী এবং ছোট মেয়ে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্সে লেখাপড়া করছেন। ব্যক্তি জীবনে হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়া অত্যন্ত সদালাপী, মার্জিত তার আচরণ এবং পাড়া, মহল্লা, গ্রাম ও ইউনিয়নের সকলের সাথে সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। মানবতার কল্যাণে জনসেবায় ৬৫ বছর বয়সী হাসমত আলী শেখ কিনু মিয়া আজও নিবেদিত।