ফের শিবির সন্দেহে জবি ৭ শিক্ষার্থী ২ দিনের রিমান্ডে

  • 24 June
  • 11:43 AM

সুফিয়ান শুভ,জবি প্রতিনিধি 24 June, 22

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) বিভিন্ন বিভাগের ৭ জন শিক্ষার্থীকে শিবির ও রাষ্ট্র বিরোধী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের আদালতে সোপার্দ করা হলে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

যাত্রাবাড়ী থানার সাব-ইন্সপেক্টর মো. নওশের আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সাব-ইন্সপেক্টর মো. নওশের আলী জানান, যাত্রাবাড়ী থানার একটা মামলায় আমরা ৭ জনকে এরেস্ট করছি। মামলা নম্বর ৩৭, তারিখ- ১২.০৫.২০২২। সেই মামলায় আমরা তদন্তপ্রাপ্ত হয়েই তাদেরকে এরেস্ট করেছি। তাদের কাছে থেকে জামাত-শিবিরের বইপত্র পাওয়া গেছে। মহামান্য আদালত দুই দিনের রিমান্ড দিয়েছে জিজ্ঞাসাবাদ করে বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য। এখন তারা যাত্রাবাড়ী থানায় হেফাজতে আছে।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, বুধবার মধ্যরাতে ওয়ারী থানার একটি টিম নারিন্দা কাঁচা বাজারের একটি বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখান থেকে ৯ জনকে গ্রেফতার করে থানায় নেয়া হয়। পরবর্তীতে তাদের যাত্রাবাড়ি থানায় হস্তান্তর করা হয়। সেখান থেকে ২ জন শিক্ষার্থীকে ছেড়ে দেয়া হয়।

ছাড়া প্রাপ্ত এক শিক্ষার্থী ঘটনার বর্ননা দিয়ে বলেন, পুলিশের দুইটি গাড়িতে প্রায় ৪০ জনের মতো এসে প্রথমে তাদের সবার ফোন নিয়ে নেয়া হয়। মেসে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু কাগজপত্র পায় তারা। পরবর্তীতে সেখান থেকে ৯ জনকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর ২ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়। বাকি ৭ জন শিক্ষার্থী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বলে তিনি নিশ্চিত করেছেন। এদের মধ্যে দুই জন প্রথম বর্ষ, তিনজন তৃতীয় বর্ষ ও বাকিরা অন্যান্য শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। ছাড়া পাওয়া ওই শিক্ষার্থীও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং অপর জন সোহরাওয়ার্দী কলেজের উচ্চমাধ্যমিকের প্রথম বর্ষ এর শিক্ষার্থী।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল অবহিত নন বলে তিনি জানিয়ছেন।

এর আগে শিবির সন্দেহে গত ২৫ মার্চ মধ্যরাতে অভিযান চালিয়ে গেন্ডারিয়া থানার ধুপখোলা এলাকার একটি মেস থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২ শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। তারা বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।