আন্তর্জাতিক জলবায়ু কর্ম দিবস উপলক্ষ্যে জলবায়ু ধর্মঘট

  • 26 Oct
  • 09:38 PM

জাফর আহমেদ শিমুল 26 Oct, 21

আন্তজার্তিক জলবায়ু কর্ম দিবস-২০২১ উপলক্ষে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এবং ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ এর যৌথ উদ্যোগে দেশের বিভিন্ন স্থানে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় পরিবেশ সংরক্ষণের নানা দাবিতে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করা হয়।

শনিবার (২৪অক্টোবর) রাজধানীর শাহবাগে আন্তজার্তিক জলবায়ু কর্মদিবস উপলক্ষে এ জলবায়ু কর্মদিবস আয়োজন আয়োজিত হয়।


জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট বৈশ্বিক উষ্ণতা আমাদের পরিবেশ ও প্রতিবেশ, অর্থনীতি এবং মানুষের জীবনের জন্য একটি দ্ব্যর্থহীন হুমকি । জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে প্রতিনিয়ত পরিবেশের বিভিন্ন সমস্যা বৃদ্ধি পাওয়ার পাশাপাশি ক্ষুধা এবং অপুষ্টি বৃদ্ধি করবে, মাছ ধরার হুমকি দেবে এবং কীটপতঙ্গ এবং রোগের নতুন ধরণ সৃষ্টি করবে ।
২৪ অক্টোবর আন্তর্জাতিক জলবায়ু কর্ম দিবস! এ দিবসে সমাজকে সচেতন করাই এ জলবায়ু ধর্মঘটের এক এবং একমাত্র উদ্দ্যেশ্য।

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট বাংলাদেশের পরিবেশের উপর বিরূপ প্রভাবের ব্যাপারে বার্তা প্রেরণের মাধ্যমে বিশ্ব নেতাদের সংশ্লিষ্ট করার জন্য এ বছর “আন্তর্জাতিক জলবায়ু কর্ম দিবস – ২০২১” উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এবং ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ এর যৌথ উদ্যোগে দেশের বিভিন্ন স্থানে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় পরিবেশ সংরক্ষণের নানা দাবিতে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করা হচ্ছে । বাংলাদেশ উপকূলের কক্সবাজার, কুয়াকাটা, তালতলী, মোংলা এবং রাজধানী ঢাকার শাহবাগসহ দেশের অন্যান্য স্থানে গুরুত্বপুর্ণ বিভিন্ন দাবীতে পরিবেশকর্মীদের একত্রিত হয়ে প্রতিবাদ জানায়।

উক্ত জলবায়ু ধর্মঘটে জয়েন্ট সেক্রেটারি রাওমান স্মিতা বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন(বাপা) এবং ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ'র পক্ষ থেকে দাবী-দাওয়া সমূহ তুলে ধরেনঃ

১.বাংলাদেশের দেশের সকল নদী ও জলাশয় রক্ষা করতে হবে ।
২. দখল ও দূষণের হাত থেকে কক্সবাজার রক্ষা করতে হবে ।
৩. টেংরাগিরি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য ও পায়রা-বিষখালি-বলেশ্বর মোহনা রক্ষা করতে হবে ।
৪. আন্ধারমানিক নদী ও ইলিশ অভয়ারণ্য রক্ষা করতে হবে ।
৫. শিল্প-দূষনের হাত থেকে সুন্দরবন রক্ষা করতে হবে ।
৬. কয়লাসহ অন্যান্য জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে ধীরে ধীরে নবায়নযোগ্য শক্তির উপর নির্ভরশীলতা বাড়াতে হবে ।
৭. বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি ১.৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের নীচে রাখতে হবে ।

উল্লেখ্য, ২০০৯ সালের ২৪ অক্টোবর থেকে সমগ্র বিশ্বব্যাপী প্রতিবছর এ দিবসটি পালিত হয়ে আসছে যা আমাদের আস্তে আস্তে সচেতন করে তুলছে।